ওজন কমাতে এই ডাক্তারি ডায়েট চার্ট পড়ে নিন (১০০% প্রমাণিত)

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
205513

ওজন কমাতে এই ডাক্তারি ডায়েট চার্ট পড়ে নিন (১০০% প্রমাণিত)

আপনার ওজন কমাতে চান? ফলো করুন ডাক্তারি এই ডায়েট চার্টটি। এই ডায়েট চার্ট টা তাদের জন্য যাদের ৮-১৫ কেজি ওজন কমাতে হবে। এটা অনুসরণ করলে মাসে ২.৫-৩ কেজি ওজন কমবে।

মেনে চলুন এই ডায়েট চার্টটিঃ

সকাল ৭ টায় যে গুলো খাবেনঃ
এক গ্লাস গরম পানিতে ১ চা চামচ লেবুর রস ও মধু দিয়ে মিশিয়ে খাবেন। অবশ্যই গরম পানি। তারপর ১০০ বার দড়ি লাফ খেলবেন বা ৩০-৪৫ মিনিট হাটবেন। অবশ্যই জোরে জোরে হাটতে হবে। ধীর গতির হাটাতে কাজ হবে না। অনেকটা লম্বা সোজা রাস্তায় হাটা ভাল।

সকাল ৮ টায় যে গুলো খাবেনঃ
সকালের নাস্তা অবশ্যই খাবেন।  সকালের নাস্তা কখনো বাদ দিবেন না। না খেয়ে থাকা ওজন কমায় না বরং ওজন বৃদ্ধি করে। সকালের নাস্তাটা অবশ্যই ঘুম ভাঙ্গার ১ ঘন্টার মধ্যে খাবেন।  সকালের নাস্তায় থাকবে-২ টা রুটি (পাতলা ও ছোট)+অল্প তেলে সিদ্ধ সবজি ভাজা+১ টি ডিমের সাদা অংশ। সাথে রাখবেন ১ বাটি সালাদ। যেমন: টমেটো ও শশা।

সকাল ১১ টায় যে গুলো খাবেনঃ
সকালে যেহেতু খাবারের পরিমাণটা কম থাকবে তাই এই সময় কিছু খাওয়া জরুরি। এই সময় খাওয়ার জন্য বেছে নিন ১ টি পেয়ারা/১ টি কমলা/১ টি আপেল/১ টি আমড়া। ইচ্ছে হলে খেতে পারেন ১ কাপ গ্রীণ টি।

আরো পড়ুনঃ  জিম নয়, জেনে নিন ঘরে বসেই খুব সহজে আকর্ষণীয় ফিগার পাবার ৭টি উপায়

দুপুর ১:৩০ থেকে ২ টায় যে গুলো খাবেনঃ
১ কাপ ভাত+১ কাপ ডাল+১ পিস মাছ বা মুরগীর মাংস (ঝোল বাদে)+১ বাটি সালাদ। ভাত ১ কাপের বেশি না। খাওয়ার আগে ১-২ গ্লাস পানি খাবেন। এতে খাওয়ার রুচি কমে যাবে। চাইলে ভাতের সাথে ১ বাটি সবজি নিতে পারেন। পেট ভরানোর চেষ্টা করবেন সিদ্ধ সবজি+সালাদে। ভুলেও ১ কাপের বেশি ভাত নিবেন না। দুপুরের খাওয়ার পর আস্তে আস্তে ১০ মিনিট হাটুন। দুপুরে ঘুমাবেন না

বিকেল ৫ টায় যে গুলো খাবেনঃ
এই বেলা খেতে পারেন ১ টা টোস্ট+১ কাপ গ্রীন টি, ২ টা লাক্সেস বিস্কুট+১ কাপ গ্রিণ টি।

সন্ধ্যা ৭ টায় যে গুলো খাবেনঃ
ইচ্ছে করলে খাবেন না করলে না। ১ টি ফল খান। যেমন:আপেল/কমলা/­­­আমড়া।১ টি টোস্টও খেতে পারেন।অথবা বাসায় তৈরি টাটকা ১ গ্লাস সবজি বা ফলের রস।

রাত ৯ টায় যে গুলো খাবেনঃ
রাতের খাবার আগে খাওয়ার চেষ্টা করবেন। কখনো ভাববেন না রাতে না খেয়ে ওজন কমাবো তবে কিন্তু হিতে বিপরীত। খাবেন রাতে তবে সেটা হালকা খাবার। ১ টি রুটি+১ বাটি সবজি+১ কাপ সালাদ/১ কাপ ফ্যাট ফ্রি দুধ+১/২ কাপ কেলোক্স স্পেসাল কে। সকালে যেটা খাবেন রাতে সেটা বাদ দিন। অর্থাৎ সকালে স্পেসাল কে খেলে রাতে রুটি খান। রুটি পাতলা,ছোট ও লাল আটার হতে হবে।

অনেক রাত জেগে থাকার অভ্যাস থাকলে বন্ধ করুন। রাতে ১১-১২ টা এর মাঝে ঘুমান। অবশ্যই রাতের খাওয়া শেষ করে ৩০ মিনিট হাটা হাটি করুন। সম্ভব হলে ঘুমাতে যাওয়ার আগে ফ্রি হ্যান্ড ব্যায়াম করুন। ক্ষুধা অনুভব করলে ১ টি আপেল, কমলা, পেয়ারা খান। ক্ষুধা রাখবেন না পেটে।

আরো পড়ুনঃ  পরামর্শঃ কান্না চেপে রেখো না


উপকারি লেখা হলে সবার সাথে শেয়ার করুন। এতোটুকুই আমাদের অনুপ্রেরণা। ভালো থাকবেন।



আমাদেরকে ফলো করুনঃ MyMeetBook, Facebook, Twitter, Instagram, Pinterest, Linkedin, YouTube, AIOVideo


Subscribe :

Subscribe to Blog via Email

Enter your email address to subscribe to this blog and receive notifications of new posts by email.

Join 1,719 other subscribers


নোটঃ
বাংলাসাজ.কম এ প্রচারিত সকল তথ্য সমসাময়িক বিজ্ঞানসম্মত উৎস থেকে সংগৃহিত এবং এসকল তথ্য কোন অবস্থাতেই সরাসরি রোগ নির্ণয় বা চিকিৎসা দেয়ার উদ্দেশ্যে প্রকাশিত নয়। জনগণের স্বাস্থ্য সচেতনা সৃষ্টি বাংলাসাজ.কম এর একমাত্র লক্ষ্য।
Like
Like Love Haha Wow Sad Angry
205513

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.


বিজ্ঞাপন